1. live@bangladeshbartabd.com : বাংলাদেশ বার্তা বিডি : বাংলাদেশ বার্তা বিডি
  2. azadnews77@gmail.com : বাংলাদেশ বার্তা বিডি : বাংলাদেশ বার্তা বিডি
  3. kazimasud01723@gmail.com : বাংলাদেশ বার্তা বিডি : বাংলাদেশ বার্তা বিডি
  4. live@www.bangladeshbartabd.com : বাংলাদেশ বার্তা বিডি : বাংলাদেশ বার্তা বিডি
  5. marahimbablu@gmail.com : Rahim :
  6. info@www.bangladeshbartabd.com : বাংলাদেশ বার্তা বিডি :
শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪, ০১:০১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
লালমাইয়ে প্রাণীসম্পদ সেবা সপ্তাহ ও প্রদর্শনী অনুষ্ঠিত নাঙ্গলকোটে আমাদের আলোকিত সমাজে ঈদ পুনর্মিলনী ও কর্মশালা অনুষ্ঠিত নাঙ্গলকোটে আমাদের আলোকিত সমাজ চেয়ারম্যান কামরুল ইসলামের উদ্যোগে ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত নাঙ্গলকোটে আওয়ামীলীগের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত বাংলাদেশ সাংবাদিক সমিতি লালমাই উপজেলা শাখার ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত চৌদ্দগ্রামে সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া’র রোগমুক্তি কামনায় ইফতার, দোয়া মাহফিল ও নেতাকর্মীদের সংবর্ধনা নাঙ্গলকোটে পল্লী বিদ্যুতের লোডশেডিংয়ে অতিষ্ঠ জনজীবন, বোরো ধান নিয়ে শঙ্কায় কৃষক নাঙ্গলকোটে চেয়ারম্যান পার্থী আবু ইউসুফ ও ভাইস চেয়ারম্যান পার্থী আব্দুর রাজ্জাক সুমনের শোভাযাত্রা বাংলাদেশ ইয়াং এসোসিয়েশন বাহারাইনের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত মইনীয়া যুব ফোরামের কেন্দ্রীয় খানকা শরীফে আলোচনা ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত

কুমিল্লায় জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটিতে চিহ্নিত মাদকব্যবসায়ী ও বিবাহিত স্থান পেয়েছে

বাংলাদেশ বার্তা বিডি ডেক্স
  • প্রকাশিত: শুক্রবার, ২২ মার্চ, ২০২৪
  • ১৬ বার পড়া হয়েছে

রুবেল মজুমদার, কুমিল্লা:

ছাত্রলীগকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম ও সাধারণ সম্পাদক ইনাম দিচ্ছেন জেলা,মহানগর,উপজেলা কমিটি। ইতিমধ্যে বেশ কয়েকটি জেলা ও উপজেলা কমিটি দিয়েন তারা ।

তবে ক্ষোভ-বিক্ষোভ প্রশমনের যে উদ্দেশ্য নিয়ে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনের কথা বলা হচ্ছে তা আদতে হচ্ছে না। বরং অভিযোগ উঠেছে ‘পকেট কমিটি’ ও ‘পদ বাণিজ্যের’। ফলে সংগঠন শক্তিশালী নয়, দুর্বলই থেকে যাচ্ছে বলে দাবি করছেন বিভিন্ন জেলা ছাত্রলীগের তৃণমূল নেতাকর্মীরা।তারা অভিযোগ করছেন, কমিটি বাণিজ্য করার মধ্য দিয়ে অনুপ্রবেশ ও হাইব্রিড হিসেবে পরিচিতদের দলে পাকাপোক্ত করার পথ সুগম করা হচ্ছে।

সদ্য গত সোমবার আগামী এক বছরের জন্য সভাপতি মিনহাদুল হাসান রাফি ও ইসরাফিল পিয়াস সাধারণ সম্পাদক করে দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের নতুন কমিটি ঘোষনা করেন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ ।

দীর্ঘ নয় বছর পর কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের এই কমিটির অনুমোদন দিয়েছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।

নতুন কমিটি ঘোষণার পর পর নতুন দুই মুখ রাফি ও পিয়াসসহ একাধিক নেতাদের নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়েছে দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের কর্মী-সমর্থকদের মাঝে। দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের প্রভাবশালী নেতৃবৃন্দের মদদে কমিটিতে একাধিক বিবাহিতসহ চাঁদাবাজি, মাদক সেবন, বিবাহিত, ছাত্রদলের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত থাকার লোকজনই নতুন কমিটিতে স্থান পেয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সাবেক দক্ষিণ জেলার অর্ধশতাধিক ছাত্রলীগ নেতা জানান, দীর্ঘদিন ধরে যারা ত্যাগী নেতাকর্মী, তাদের মূল্যায়ন করা হয়নি,সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক দুজনই বুড়িচং উপজেলার,এতে করে বাকী ৯ উপজেলার নেতাকর্মীদের পদ বঞ্চিত করা হয়েছে, চাঁদাবাজি, মাদক সেবন, বিবাহিতরা স্থান পেয়েছে নতুন কমিটিতে। এতে ত্যাগী নেতাকর্মীদের মূল্যায়ন করা হয়নি। এ ছাড়া কমিটিতে আরও কয়েকজনের জেলা কমিটিতে সদস্যপদও ছিল না। তারা পদ পেয়েছে। এ কমিটিকে পকেট কমিটি উল্লেখ করে তারা বলেন, আমরা এই অবৈধ কমিটি চাই না।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, নতুন কমিটিতে সভাপতি হিসাবে স্থান পাওয়া মিনহাদুল হাসান ওরফে রাফি বিবাহিত। যার বিয়ের প্রমাণপত্র স্বরূপ কাবিননামা ইতোমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। ভাইরাল হাওয়া রাফির সেই কাবিননামায় সাক্ষী হিসেবে রয়েছে জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি ও অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের ভাতিজা ও লালমাই উপজেলা চেয়ারম্যান কামরুল হাসান শাহীনের স্বাক্ষর।

অভিযোগের বিষয় জানতে সদ্য ঘোষিত কমিটির সভাপতি মিনহাদ রাফিকে একাধিক কল দিয়ে তার সাথে যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

নতুন কমিটির সাধারণ সম্পাদক ইসরাফিল পিয়াসের বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক অভিযোগ,দুই বছর আগে বুড়িচং উপজেলার নিমসার বাজারের ইজারাদার আবদুল্লাহ আল মামুন কাছে ৫০ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করেন,চাঁদা না দেওয়ায় পিয়াস ইজারদার আবদুল্লাহ আল মামুনসহ তার কর্মীদের সন্ত্রসী হামলা চালায় ।

বিষয়টি নিশ্চিত করে নিমসার বাজারের সাবেক ইজারাদার আবদুল্লাহ আল মামুন বলেন,আমি এ বিষয় থানায় মামলা করেছি,পিয়াস প্রভাবশালী হওয়ায় আর বিচার পেলাম না ।

অভিযোগের বিষয় সদ্য ঘোষিত কমিটির সাধারন সম্পাদক ইসরাফিল পিয়াসের পিতা বুড়িচংয়ের মোকাম ইউনিয়নের যুবলীগের সভাপতি মো মাসুদ বলেন,সেই ঢাকা রয়েছে,তার মোবাইল নাম্বারটা বন্ধ,কাল(বুধবার ) ঢাকা থেকে আসবে, আমরা ছেলে বিরুদ্ধে একটি মামলা রয়েছে,রাজনীতি করতে গেলে, এমন মামলা,থাকতে পারে, যে মামলা করেছে সেই মাদক মামলার পলাতক আসামি ।

এদিকে,কমিটি ঘোষণার পর পরই শেখ ওয়ালী আসিফ ইনানকে হত্যার হুমকি দিয়ে ফেসবুকে পোস্ট দেন নবগঠিত কমিটির দ্বিতীয় সহ-সভাপতি আবু মূছা খান। মো. আবু মূছা খান তার ফেসবুক ওয়ালে লেখেন, ‘প্রথমে শেখ ইনানকে (শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান, ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক) মারবো, পরে নিজে মরবো।’

আবু মূছার বক্তব্য জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ইনান টাকা খেয়ে কমিটি দিয়েছেন। একই উপজেলায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক,এটা কিভাবে সম্ভব? জীবনভর আমরা রাজপথে ছিলাম অথচ তিনি কমিটির নেতৃত্ব দিলেন বিবাহিত আর মাদক ব্যবসায়ীকে।’

এ সময় এই ছাত্রলীগ নেতা কেঁদে ওঠে বলেন, ‘জীবনটা শেষ করে দিয়েছে আমার। ছোট ভাইকে বিয়ে করালাম, নিজে করিনি। অথচ সভাপতি দিলো একটা বিবাহিত লোককে। আর সাধারণ সম্পাদক দিয়েছে মাদকসহ ৫ মামলার আসামিকে।’আমি টাকা কম দেওয়া আমাকে রাখা হয়নি।

দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের আগের কমিটির যুগ্ন সাধারন সম্পাদক ও নতুন কমিটিতে চতুর্থ সহ-সভাপতি এম রুবেল হোসেন বলেন, যে কমিটিতে কর্মীকে সম্মানিত করে নেতাকে অসম্মানিত করা হয়, সেটি কোন ধরনের শিষ্টাচার? বাংলাদেশ ছাত্রলীগকে ধিক্কার জানাই। এমন কমিটির সঙ্গে আমাদের বা আমার কোনও সম্পর্ক নেই। সদ্য সাবেক কমিটিতে আমার অনেক কর্মী জেলা ছাত্রলীগের সহ-সভাপতি ছিল, আমার অনেক কর্মী কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সম্পাদক, উপ-সম্পাদক, সদস্য পদে দায়িত্ব পালন করেন- আর আমাকে আপনারা অসম্মানিত করলেন? এটা কোন ধরনের অপরাজনীতি? মাননীয় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক সাহেব, এটা কী জেলা ছাত্রলীগের কমিটি করলেন নাকি বুড়িচং উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি দিলেন?’

অভিযোগের বিষয় কথা বলতে সদ্য ঘোষিত কমিটির সভাপতি মিনহাদুল ইসলাম রাফিকে একাধিক কল ও মেসেজ দিলেও তিনি সাড়া দেননি।

এ বিষয়ে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আবু ইউনূস বলেন,ছাত্রলীগের গঠনতন্ত্র ভেঙ্গে কাউকে পদ দেওয়া নি,যেহেতু বাংলাদেশ ছাত্রলীগ বৃহত্তর একটি সংগঠন,সেহেতু এখানে সবাইকে পদ দেওয়া সম্ভব নয়।

গঠনতন্ত্র ভেঙ্গে কমিটির দেওয়ার অভিযোগের বিষয় জানতে চাইলে তিনি বলেন, কেউ হয়তো পদবঞ্চিত হয়ে নানা কথা বলতে পারে , আমরা গঠনতন্ত্রের বাইরে কাউকে কমিটিতে স্থান দেয়নি,যদি উপযুক্ত প্রমান দিতে পারে তাহলে বিষয়টি বিবোচনা নেওয়া হবে। যারা পদ প্রত্যাশী ছিলো সবাই কুমিল্লার ত্যাগী ছাত্রলীগ কর্মী এডি অস্বাকীর করা সুযোগ নেই,তবে সবাই তো আর সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক করা যাবে না ।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২৩ জুলাই এক বছরের জন্য কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের কমিটি দেয় বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ।পরে ২০২২ সালে ১৩ মে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা শাখা কর্তৃক মেয়াদোত্তীর্ণ হওয়ায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা শাখা কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করে । গত বছর সর্বশেষ গত ২৯ সেপ্টেম্বর ছাত্রলীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত হয়। কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের নেতাদের উপস্থিততে সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক পদে সেখানে প্রার্থিতা করেন মোট ৪৩ জন।

সংবাদটি শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরো সংবাদ পড়ুন
© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত
প্রযুক্তি সহায়তায়: ইয়োলো হোস্ট